মুম্বাই হামলা : পাকিস্তানে হাফিজ সাঈদের তিন সহযোগীর কারাদণ্ড

১৩০
মুম্বাই হামলা

২০০৮ সালে ভারতের মুম্বাই শহরের বিলাসবহুল হোটেল তাজে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় জড়িত হিসেবে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দাদের তালিকায় জামাত-উদ-দাওয়া নামের একটি সংগঠনের যে তিন সদস্যের নাম রয়েছে; পাকিস্তানের একটি আদালত শনিবার তাদেরকে কারাদণ্ড দিয়েছেন। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, পাকিস্তানকে কালো তালিকাভূক্ত করতে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ইসলামাবাদকে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন রোধ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক ওয়াচডগ ফিন্যান্সিয়াল অ্যাকসন টাস্ক ফোর্সের (এফএটিএফ) বেধে দেয়া সময়সীমার ঠিক আগ মুহূর্তে সন্ত্রাসী হিসেবে অভিযুক্ত এসব ব্যক্তির কারাদণ্ডের রায় দেয়া হলো।

কালো তালিকাভূক্তি মানে ইরান ও উত্তর কোরিয়ার মতো আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে পাকিস্তানের জন্য অর্থ বরাদ্দ বন্ধ হবে। যারা সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন করছে তাদের বিচার করে শাস্তি দেওয়া ছাড়াও সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নের নজরদারি করে তা বন্ধে আইন প্রণয়নের জন্য ইসলামবাদকে চাপ দিয়ে আসছে এফএটিএফ।

পাকিস্তানি ওই আদালতের রায়ে চারটি অভিযোগে মালিক জাফর ইকবাল এবং আব্দুল সালাম নামের প্রত্যেকেকে ১৬ বছর ৬ মাস করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া একটি অভিযোগে হাফিজ আব্দুল রেহমান মাক্কি নামের তৃতীয় ব্যক্তিকে দেওয়া হয়েছে দেড় বছরের কারাদণ্ড।

দণ্ডপ্রাপ্ত এসব ব্যক্তি লস্কর-ই-তৈয়বার প্রতিষ্ঠাতা প্রধান হাফিজ সাঈদের সহযোগী। এর আগে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে হাফিজ সাঈদকে মোট ১১ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তবে একসঙ্গে সাজা শুরু হওয়ায় হাফিজ সাঈদ, মালিক জাফর ইকবাল এবং আব্দুল সালাম; তারা তিনজনই পাঁচ বছর করে কারাভোগ করবেন।

২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বরের মুম্বাইয়ের বিলাসবহুল তাহ হোটেলে ভয়াবহ ওই হামলার ঘটনায় নিমিষেই ১৬০ জনের প্রাণহানি হয়। তাতে যুক্তরাষ্ট্রসহ অনেক দেশের নাগরিক নিহত ছিলেন। ওই হামলার জন্য লস্কর-ঈ-তৈয়বা ও হাফিজ সাঈদকে মাস্টার মাইন্ড হিসেবে অভিযুক্ত করে আসছে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্র।

অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন ডেস্ক
https://bangladeshdawn.com/author/202006131592032